২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

December 8, 2019, 6:12 am

নির্বাচনের আগেই ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতা পাবে শিক্ষকরা

নিজেস্ব প্রতিনিধিঃ বিশ্ব শিক্ষক দিবস উপলক্ষ্যে শুক্রবার স্বাধীনতা শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের উদ্যোগে ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেশ বরেন্য শিক্ষাবিদ, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ এর উপাচার্য, স্বাশিপ এর কেন্দ্রীয় সভাপতি প্রফেসর ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী। স্বাধীনতা শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশনের প্রধান সমন্নয়কারী, শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের শিক্ষক কর্মচারী কল্যান ট্রাস্টের সদস্য সচিব অধ্যক্ষ মোঃ শাহজাহান আলম সাজু’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন প্রফেসর সাজিদুল ইসলাম, সাইদুর রহমান পান্না, অধ্যক্ষ মোনতাজ উদ্দিন মর্তুজা, আবদুল্লাহ আল মামুন, হারুন-অর-রশিদ, মোঃ জহিরউদ্দিন হাওলাদার, শাহজাহান খান।

সভায় বক্তারা প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত শিক্ষা ব্যসস্থা জাতীয়করন অবিলম্বে বাস্তবায়ন এবং বেসরকারী সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করনের দাবী জানান।
আগামী নির্বাচনের আগেই শিক্ষকদের একাউন্টে ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট ও বৈশাখী ভাতার টাকা শিক্ষকদের একাউন্টে চলে যাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজেই এ বিষয়ে ঘোষণা দেবেন সভায় শিক্ষক নেতারা এমন আশার বাণী শুনিয়েছেন শিক্ষকদের।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সভাপতি প্রফেসর ড. আব্দুল মান্নান চৌধুরী বলেন, আগামী নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মুখ থেকে ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট এবং বৈশাখী ভাতার ঘোষণা শুনতে চাই। আর নির্বাচনের পর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণের দাবি বাস্তবায়ন করবে সরকার।
সভাপতির বক্তব্যে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের সদস্য সচিব অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু বলেন, শিক্ষকদের ৫ শতাংশ ইনক্রিমেন্ট বাবদ ৫০০ কোটি টাকা এবং বৈশাখী ভাতা ২০০ কোটি টাকা আগামী নির্বাচনের আগেই শিক্ষকদের একাউন্টে পৌছাঁবে। আমরা চেষ্টা করছি প্রধানমন্ত্রী নিজের মুখে এ বিষয়ে ঘোষণা দেবেন।

সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটির প্রাক্তন উপাচার্য প্রফেসর মাহবুব আলী। BMGTA-এর মহাসচিব জহির উদ্দিন হাওলাদার মাদ্রাসার ব্যাপক উন্নয়নের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান এবং মাদ্রাসার প্রশাসনিক (অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ, সুপার, সহ-সুপার) পদে জেনারেল শিক্ষক নিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি করে দৃষ্টান্ত স্থাপনের অনুরোধ জানান।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর