২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

December 5, 2019, 2:06 pm

পঞ্চগড়ে জামাতের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সহ ৮ জামাত নেতার ৩ বছরের জেল

পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বঙ্গবন্ধুর ছবি জ্বালিয়ে দেওয়া ও আ:লীগের অফিস ভাংচুর মামলায় পঞ্চগড়ের বোদার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান সহ আটজন জামায়াত নেতাকে তিন বছর সশ্রম কারাদন্ড ও পাঁচ হাজার টাকা অর্থ দন্ড এবং মামলার অপর ২০ জন আসামীকে বেখসুর খালাস দিয়েছে আদালত।
বৃহস্পতিবার এজলাস চলাকালিন সময় ২০০২ সালের আইন শৃংখলা বিঘ্নকারী অপরাধ আইনের ৪ ধারায় তাদেরকে দোষী সাব্যস্ত করে পঞ্চগড় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক কামরুল ইসলাম এ রায় দেন।
সাজাপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন, সাবেক বোদা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ সফিউল্লাহ সুফি সবুজ মোল্লা, বাবুল মুন্সি, , মোঃ সাইদুর রহমান, মোঃ সুলতান মোঃ জয়নুল মুন্সি, মোঃ হায়দার আলী মাষ্টার এবং মোঃ রাজিউল ইসলাম প্রধান। এদের মধ্যে রাজিউল ইসলাম প্রধান পলাতক রয়েছে
জানা যায়, ২০১৩ সালে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার সাকোয়া ইউনিয়ন আ.লীগের দলীয় কার্যালয়ে হামলা করে স্থানীয় জামায়াত নেতারা। এ ঘটনায় মোট ২৮ জনকে আসামী করে দ্রুত বিচার আইনে মামলা দায়ের করা হয়। দীর্ঘ আইনি লড়াই শেষে বৃহস্পতিবার আদালত আট জনকে তিন বছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে সাত জনকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন।
এছাড়াও প্রত্যেককে পাঁচ হাজার টাকা করে অর্থদন্ড, অনাদায়ে দুই মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড দেয়া হয়। এ বিষয়ে সরকার পক্ষের আইনজীবি এ্যাডঃ সুলতানে আলম আদালতের রায়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন। অপরদিকে আসামী পক্ষের আইনজীবি এ্যাডঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, আমরা ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছি। এখন আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করবো।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর