২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

December 8, 2019, 5:35 am

উল্লাপাড়ায় বন ও প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তার সহতায় মেছো বাঘ অবমুক্ত

বিশেষ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ  উল্লাপাড়া উপজেলায় আটককৃত একটি মেছো বাঘকে বন ও প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তার সহতায়  অবমুক্ত করা হয়েছে।আজ সোমবার (৪ নভেম্বর)প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের উপজেলা কর্মকর্তা ড.মোর্শেদ উদ্দিন আহম্মেদ,বন ও পরিবেশ অধিদপ্তরের উপজেলা বন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম,উল্লাপাড়া প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক জয়নাল আবেদিন জয় সহ অন্যান্য সাংবাদিক ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের উপস্থিতিতে এই বিরল প্রজাতির মেছো বাঘটি করতোয়া নদীর পাড়ে জঙ্গলে অবমুক্ত করা হয়েছে।
ঘটনাটি ঘটে উপজেলার পৌর শহরের নেওয়ারগাছা গ্রামের তোফাজ্জল হোসেনের বাড়ীতে।তোফাজ্জল হোসেন জানান গতকাল রবিবার রাতে হঠাৎ একটি মেছো বাঘটি আমার বাড়ীর ঘরের ভিতর ঢুকে পরলে আমার পরিবারের সকলে ভয়ে চিৎকার করে উঠলে প্রতিবেশিরা আগাইয়া আসে এবং বাঘটিকে আটক পূর্বক বেদরক মারপিট করতে থাকে।এ কারনে বাঘটি অসুস্থ্য হয়ে ক্রমেই দুর্বল হয়ে পরে।মেছো বাঘটিকে তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করে সোমবার সকালে জয়নাল আবেদিন জয়কে সংবাদ দেই।সংবাদের ভিত্তিতে তিনি উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ও বন কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে নেওয়ারগছা তোফাজ্জল হোসেনের বাড়ি থেকে আহত বাঘটিকে উদ্ধার করে প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ে নিয়ে আসেন। অসুস্থ্য বাঘটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে করতোয়া নদীর পাড়ে জঙ্গলে প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা ও বন কর্মকর্তার সহতায়  অবমুক্ত করা হয়েছে। বর্তমানে আমাদের দেশে এ ধরনের বিরল প্রজাতির মেছো বাঘ বিলপ্তির পথে। অনেক পূর্বে এধরনের বাঘের দেখা পাওয়া গেলেও বর্তমান সময়ে তা অদৃশ্যের পথে। তিনি ধারনা করেন বাঘটি কোন বড় ধরনের জঙ্গল/বন থেকে পথভ্রষ্ট হয়ে পৌর শহরাঞ্চালে অনুপ্রবেশ করে আত্ম রক্ষার্তে আশ্রয়স্থল হিসাবে নেওয়ারগাছা গ্রামের তোফজ্জল হোসেনের বাড়িতে ঢুকে পরেছিল।বন কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন জীবনের ঝুকি জেনেও আত্ম রক্ষার্তে ঐ বাড়িতে অনুপ্রবেশ করেছিল বাঘটি। এ জন্য বাড়ির সদস্যদের কোন ক্ষতি করতে পারেনি হিংস্র প্রাণীটি। চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ্য করে করতোয়া নদীর পাড়ে জঙ্গলে অবমুক্ত করা হয়েছে হিংস্র প্রাণীটিকে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর