৮ই চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

March 22, 2020, 7:47 pm

উৎপাদিত ধানের মূল্য না পাওয়ায় পঞ্চগড়ে কমেছে বোরো ধান চাষ


পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃ পঞ্চগড়ে এক বছরের ব্যবধানে বোরো চাষ কমেছে প্রায় ৮ হাজার হেক্টর। বাজারে উৎপাদিত ধানের ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় চাষীরা ধান চাষ থেকে ক্রমেই সরে আসছেন। ধান চাষ কমিয়ে দিয়ে তারা বাদাম, ভুট্টা ও গমসহ অন্যান্য ফসলের দিকে ঝুঁকছেন। ধান উৎপাদনের পর বাজারে ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করা না গেলে পঞ্চগড়ে সামনে ধান চাষাবাদে মারাত্মক প্রভাব পড়বে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্টরা।
জেলা কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তরের দেয়া তথ্য মতে, গত বছর পঞ্চগড় জেলায় বোরো চাষাবাদ হয়েছিল ৩৮ হাজার হেক্টর জমিতে। এবার জেলার পাঁচ উপজেলায় বোরো চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয় ৩৭ হাজার হেক্টর। কিন্তু চাষাবাদ হয়েছে মাত্র ২৯ হাজার হেক্টর জমিতে। এক বছরের ব্যবধানে বোরো চাষ কমেছে ৮ হাজার হেক্টর।
চাষীরা জানান, গত কয়েক বছরে ধান চাষ করে ক্রমাগত লোকসান গুণছেন তারা। তাই ধান চাষ কমিয়ে দিয়ে অন্য ফসলের দিকে ঝুকছেন তারা। চাষীরা আরো জানায়, জমি তৈরি, সার, বীজ, কীটনাশক, চারা রোপন, সেচ ও পরিচর্যা খরচ থেকে শুরু করে ধান কাটা পর্যন্ত প্রতি বিঘা জমিতে ধান উৎপাদনে খরচ হয় প্রায় ১২ হাজার টাকা। কিন্তু গত কয়েক বছরের হিসেব অনুযায়ী ধান উৎপাদনের পর বাজারে নিয়ে ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা মণ দরে বিক্রি করে তাদের লোকসান গুণতে হয়েছে। সরকারিভাবে লটারির মাধ্যমে কৃষকদের কাছে ধান কেনার কথা থাকলেও মূলত সেই সুফল বিরাট অঙ্কের চাষীদের ভাগ্যে জোটেনি। ধার দেনা করে ধান চাষাবাদ করে প্রতিবছরই লোকসান গুণতে হচ্ছে চাষীদের। তাই এবার বোরোর জায়গায় চাষীরা বাদাম, ভুট্টা ও গমসহ অন্যান্য ফসল চাষ করছেন। চাষীদের দাবি ধানে লোকসান হলেও এসব ফসলে দ্বিগুণ লাভ পাওয়া যায়।
পঞ্চগড় সদর উপজেলার কৃষক নাজিম উদ্দিন বলেন, ধানের ন্যায্যমূল্য না পেলে আগামীতে ধান চাষ আরও কমে আসবে। তাই সরকারকে এখনই বাজার নিয়ন্ত্রণে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। চাষীরা যেন ধানের ন্যায্য মূল্যটুকু পায় সেটি নিশ্চিত করতে হবে।
জেলা কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু হানিফ বলেন, ধানে লাভ কম হওয়ায় চাষীরা এখন বাদাম, ভুট্টা, গমসহ অন্য ফসল আবাদ করছেন। তাই এবার বোরো চাষাবাদ কিছুটা কম হয়েছে। তবে তা ধান উৎপাদনে তেমন প্রভাব ফেলবে না বলে তিনি জানান। #

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর