,

মাদ্রাসা শিক্ষার প্রতি বৈষম্য,ষড়যন্ত্রও অসংগতি

ফিরোজ আলম:
••সম্প্রতি এমপিও ভুক্তির নীতিমালা প্রণীত হয়েছে।শর্ত হল ১০০ নাম্বারের গ্রেডিংয়ের মাধ্যমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করা হবে।ক• একাডেমীক স্বীকৃতিতে ২৫ নাম্বার( প্রতিষ্ঠানের বয়স ১০ বা তার বেশি হলে)খ• শিক্ষার্থী সংখ্যায় ২৫ নাম্বার( কাম্য সংখ্যার জন্য ১৫,এর পর ১০% বৃদ্ধিতে ৫নাম্বার করে)গ• পরিক্ষার্থী সংখ্যায় ২৫ নাম্বার,( কাম্য পরিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে ১৫,তার বেশি প্রতি ১০% এর জন্য ৫ নাম্বার, ঘ•পাবলিক পরিক্ষা উত্তীর্নদের জন্য ২৫।( কাম্য উত্তীর্নদের জন্য ১৫ নাম্বার,পরবর্তী প্রতি ১০% এর জন্য৫ নাম্বার)। উপরের তথ্যগুলি বিশ্লেষনে দেখা যায় যারা উপরের তথ্যগুলি মানবে তাদের এমপিও ভুক্তি করা হবে।বাকীদের হবেনা।এবার দেখুন,সরকারি সিদ্ধান্ত প্রাথমিক ধাপে এক হাজার প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি হবে।এর মধ্যে নিন্ম মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৪০০ টি,স্কুল এন্ড কলেজ ১০ টি,কলেজ ৭৫ টি,বিজনেস ম্যানেজম্যান্ট কলেজ ১১৫ অর্থাৎ মোট স্কুল + কলেজ ৬০০টি অর্থাৎ মোট এমপিও ভুক্তির ৬০%। কারিগরিতে, ভোকেশনাল স্কুল ও কলেজ ৩০০টি অর্থাৎ মোট এমপিওভুক্তির ৩০%, দাখিল মাদ্রাসা ১০০টি অর্থাৎ মোট এমপিওভুক্তির ১০%।আলিম,ফাজিল,কামিল মাদ্রাসা একটাও নেই।যারা এই এমপিওভুক্তির নীতিমালায় সংশ্লিষ্ট , মাদ্রাসার প্রতি তাদের এই ষড়যন্ত্রের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।অবিলম্বে সমহারে মাদ্রাসাএমপিওভুক্তির দাবি জানাচ্ছি।অন্যদিকে স্কুল- কলেজে শিক্ষক নিয়োগের মেয়াদ ৩৫ বছর,মাদ্রাসাতে তা নাই।মানে হল যোগ্য শিক্ষক স্কুল – কলেজে যাওয়ার পর বাকী যা থাকে ( কম যোগ্য)তা মাদ্রাসার জন্য বরাদ্ধ।অথচ মাদ্রাসা ও স্কুলে একই বই পড়ানো হয়।বরং আরবী মাদ্রাসা ছাত্ররা বেশি পড়ে। এর কারন হল মাদ্রাসার শিক্ষার মান ধ্বংস করা।তাহলে অজুহাতে যেমনি ২০২ টি মাদ্রাসা বন্ধ করা হয়েছে,২৫০ টি বন্ধের পথে রয়েছে,ভবিষ্যতে এই মানের অজুহাতে মাদ্রাসা বন্ধ করে দেওয়া।shame! মাদরাসাতে বদলিপ্রথা রাখা হয়নি,মানে হল মাদ্রাসা জাতীয়করন করা হবেনা।এভাবে মাদ্রাসা শিক্ষার প্রতি বৈষম্যমূলক সিদ্ধান্ত হলে মাদ্রাসা শিক্ষকরা তা মেনে নিবেনা।মাদার অব হিউম্যানিটি, বিশ্বনেত্রী, মাননীয় প্রধান মন্ত্রী আপনি বিষয়টি দেখুন,জানুন,এই বৈষম্য বাতিল করুন।

ফিরোজ আলম,সাধারন সম্পাদক, বাংলাদেশ মাদ্রাসা জেনারেল টিচার্স এসোসিয়েশন লক্ষীপুর জেলা শাখা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর