,

রোনালদোকে কেনার টাকা উঠে গেছে জুভেন্টাসের!

রোনালদোর সঙ্গে জুভেন্টসের চুক্তি হয়েছে বিশ্বকাপের মধ্যে। তখন এই দল বদল নিয়ে তেমন কোন কথা হয়নি। রোনালদো ভক্তরা এমবাপ্পে, গ্রিজম্যান, হ্যাজার্ড, মডরিচদের নিয়ে মেতে ছিলেন। জার্সিও কিনেছে এই সব তারকা খেলোয়াড়ের। কিন্তু বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার একদিন বাদেই তুরিনে পা দিয়েছেন রোনালদো।

এরই মধ্যে জুভেন্টাসের আয়ের অংকটা ফুলে ফেপে উঠেছে। রোনালদোকে কেনার জন্য এবং পারিশ্রমিক হিসেবে যে টাকা জুভেন্টাস খরচ করছে তার অর্ধেকটা তুলে ফেলেছে ইতালিয়ান ক্লাবটি। অথচ রোনালদো এখনো জুভেন্টাসের জার্সিই গায়ে পরে মাঠে নামেননি। 

রোনালদোকে কেনার জন্য জুভেন্টাস ১০ লাখ ইউরো খরচা করেছে। এছাড়া ৪ বছরের চুক্তিতে রোনালদো নেবেন আরও প্রায় ১২ লাখ ইউরো। সব মিলিয়ে হিসেবটা ২২ লাখ ইউরোর মতো। বাংলাদেশের টাকায় যা দাঁড়ায় প্রায় ৯৮৮ কোটি টাকার মতো। এর মধ্যে পর্তুগিজ তারকার দৌলতে জুভেন্টাস ৫১৮ কোটি টাকা আয় করে ফেলেছে। তাও কিনা শুধু জার্সি বিক্রি করে। সিআরসেভেন ইতালির ক্লাবে যাওয়ার পর জুভেন্টাসের ৫ লাখ ২০ হাজার জার্সি বিক্রি হয়েছে। 

এরমধ্যে জুভেন্টাসের প্রধান স্পনসর অ্যাডিডাস মাত্র এক ঘণ্টায় বিক্রি করেছে প্রায় ২০ হাজার জার্সি। জুভেন্টাসের একটি জার্সির দাম বাংলাদেশের টাকায় ৯৮০০ টাকার মতো। রেপ্লিকা হলে প্রায় ৪ হাজার ৩০০ টাকার মতো। রোনালদো জুভেন্টাসে যাওয়ার তিন দিনের মধ্যেই এই আয় করেছে তারা। সেখানে রোনালদোকে কিনতে জুভেন্টাসের যে টাকা খরচ হয়েছে তা জার্সি বিক্রির টাকা থেকে উঠে আসবে বলেই মনে হচ্ছে। 

কারণ রোনাল্ডো মাঠে নামার আগেই মোট ব্যয়ের প্রায় ৫০ শতাংশ আয় করে ফেলেছে জুভেন্টাস। এর আগে ২০১৬ সালে প্রায় ৮ লাখ জার্সি বিক্রি করেছিল জুভেন্টাস। সেই রেকর্ড এবার ছাপিয়ে যাবে বলেই মনে করছেন ক্লাবকর্তারা। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর