,

পীরগঞ্জ ইয়াবা দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে ফেঁসে গেলো ২ দারোগা

প্রতিনিধি পীরগঞ্জ(রংপুর) :- রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার চতরা হাটে এক ব্যাসায়ীর পকেটে ইয়াবা ঢুকে দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে পীরগঞ্জ থানার ২ পুলিশ অফিসার নিজের্ইা ফেঁসে গেছেন। এরা হচ্ছে-এস আই স্বপন কুমার ও এএসআই জাহাঙ্গির আলম। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর চতরা হাটে এ ঘটনা ঘটে। রাতেই এ দু’জনকে সাময়ীক বরখাস্থ করা হয়। পরিস্থিতি সামলাতে কথিত ২ সোর্সের নামে পীরগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। উল্লেখ্য,গত বৃহস্পতিবার রাত ৯ টায় পীরগঞ্জ থানার এস আই স্বপন কুমার ও এ এস আই জাহাঙ্গির আলম সাদা পোষাকে চতরা হাটে গিয়ে কাঠালপাড়া গ্রামের আবেদ আলীর পুত্র ধান ব্যবসায়ী শ্রমিক নেতা রফিকুল ইসলামের পকেটে ৫টি ইয়াবা ঢুকে দিয়ে আটকের চেষ্টা করে। এ সময় পকেট চেপে ধরে রফিকুল “আমাকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসানো হচ্ছে” বলে চিৎকার করতে থাকলে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে ওই ২ পুলিশ অফিসারকে আটকের পর গনধোলাই দেয়। জনতার কবল থেকে এদের রক্ষা করতে এসে চতরা ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক শাহীন নিজেও জনরোষে পড়ে শারিরিকভাবে লাঞ্ছিত হন। ঘন্টা খানেক এর মধ্যে হাজার হাজার মানুষ জড়ো হয়। পরিস্থিতি আরও জটিল রুপ নেয়। রাতেই উর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারা এসে স্থানীয় ইউপি কার্যালয় থেকে আটক পুলিশ অফিসারদ্বয়কে উদ্ধার করেন। গত শুক্রবার দুপুর ২ টায় পীরগঞ্জ থানার ওসি রেজাউল করিম বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় করেন। এ সময় তিনি বলেন-গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ২ পুলিশ অফিসার ইয়াবা ব্যাবসায়ী আব্দুল কাদের কে আটক করতে গিয়ে সোর্সের ভুলের কারনে রফিকুল ইসলামকে আটক করেন । ফলে বিপত্তি ঘটে যায়। ভুল তথ্য দেয়ার অভিযোগে আটক ২ সোর্সের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বর্তমানে এরা জেল হাজতে। সোর্স দু’জন হচ্ছে-পীরগঞ্জ থানার বাবুর্চি গাইবান্ধা জেলার সাদৃল্যাপুর উপজেলার গঙ্গানারায়নপুর গ্রামের মৃত মজিদ সরকারের পুত্র বাবুল মিয়া ও পীরগঞ্জ উপজেলার রায়পুর ইউনিয়নের নখারপাড়া গ্রামের মনজুরুল ইসলাম বুদা মিয়া। এদিকে চতরা এলাকায় বর্তমানে পুলিশী আতংক বিরাজ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর