,

dig

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে মহাবিপন্ন মদনটাকের চার বাচ্চা ফুটেছে

গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে গত দুই মাসের ব্যবধানে দুই জোড়া মদনটাক-এর চারটি ডিম থেকে বাচ্চা ফুঁটেছে। 

ওয়াইল্ড লাইফ সুপারভাইজার আনিসুর রহমান জানান, ডিম থেকে ফোঁটা মদনটাকের চারটি বাচ্চাই সুস্থ আছে। ঠোঁটে তুলে বাচ্চাদের মাছ খাওয়ায় মা পাখি।

জানা যায়, ২০১৩ সাল থেকে বিভিন্ন সময়ে দেশের নানাস্থান থেকে ছয়টি মদনটাক পাখি সংগ্রহ করা হয়। এদের মধ্যে একটি পাখি গত অক্টোবরের মাঝামাঝি তিনটি ডিম দেয়। গত নভেম্বরের ১৪ ও ১৫ তারিখে দুটি ডিম থেকে বাচ্চা ফোঁটে।

তবে দেশে আবদ্ধ পরিবেশে মদনটাক পাখির ডিম থেকে বাচ্চা ফোঁটার এটিই প্রথম ঘটনা। পরে আরেকটি পাখি গত নভেম্বরেই তিনটি ডিম দেয়। পরে ১৭ ও ১৮ ডিসেম্বর আরো দুটি ডিম থেকে বাচ্চা ফোঁটে।

ওয়াইল্ড লাইফ সুপারভাইজার সরোয়ার হোসেন খান জানান, আলাদা সময়ে ফোঁটা চারটি বাচ্চাই ওদের মাকে ঘিরে চলাফেরা করে।। মা পাখি বাচ্চাদের ঠোঁটে তুলে খাওয়ায়। দুটি বাচ্চা ছুটতে পারলেও শারীরিকভাবে উড়ার সক্ষমতা হয়নি। এদেরকে বড় নদ-নদী ও হ্রদ এলাকায় দেখা যায়।

এদের আবাসস্থল ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মায়ানমার, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, মালয়েশিয়া, লাওস, ইন্দোনেশিয়া ও কম্বোডিয়া। সিঙ্গাপুর ও চীনে বিলুপ্ত হয়ে গেছে এ মদনটাক। বাংলাদেশের বিশেষ কয়েকটি নদী ও সুন্দরবনে মাঝেমধ্যে দেখা মেলে এদের।

পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল মোতালেব হোসেন জানান, আবদ্ধ পরিবেশে এ পাখির ডিম থেকে বাচ্চা ফোঁটায় আশা জেগেছে এদের অস্বিত্ব রক্ষার। যেকোনো মূল্যে এর ধারাবাহিকতা ধরে রাখা হবে। এতে দর্শনার্থীদের মধ্যে কৌতূহল আর আনন্দ অনেক বেড়ে গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর