,

এবার আখেরি মোনাজাত হবে বাংলায়, করবেন মাওলানা জোবায়ের

এবারে টঙ্গীর বিশ্ব এজতেমায় ভারতের মাওলানা সাদ কান্ধলভি অংশ নিচ্ছেন না। তাকে নিয়ে বিতর্ক উঠার পর ভারতের মাওলানা সাদ কান্ধলভি বাংলাদেশে এলেও বিশ্ব এজতেমায় অংশ না নিয়ে ফিরে যাচ্ছেন। ভারতের মাওলানা জোবায়রুল হাসান মারা যাওয়ার পর তিনিই (মাওলানা সাদ) বিশ্ব এজতেমায় তার হাল ধরেছিলেন। বিশ্ব এজতেমায় উর্দূতে বয়ান করা ছাড়াও তিনি একই ভাষায় আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করতেন। কিন্তু এবার আখেরি মোনাজাত ও হেদায়তি বয়ান দুই-ই হবে বাংলায়।

বিশ্ব এজতেমার মুরুব্বী প্রকৌশলী মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, এবার বিশ্ব এজতেমায় আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করবেন বাংলাদেশের কাকরাইলের মাওলানা হাফেজ জোবায়ের। আখেরি মোনাজাতের আগে হেদায়তি বয়ান হয় তা করবেন বাংলাদেশী মাওলানা আব্দুল মতিন।

তিনি আরো জানান, রবিবার সকাল ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে আখেরি মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার রাতে তাবলীগ জামাতের মুরুব্বীদের নিয়ে এক বৈঠকে ওই সিদ্ধান্ত হয়েছে। তবে এ বিষয়ে আর কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

তবে তাবলীগ জামাতের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অপর এক শীর্ষ স্থানীয় মুরুব্বী বলেন, আখেরি মোনাজাত হবে আরবিতে কিংবা উর্দূতে।

শুক্রবার ফজরের নামাজের পর শুরু হয়েছে এবারের বিশ্ব এজতেমার প্রথম দফা। রবিবার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ দফা। চারদিন বিরতি দিয়ে ১৯জানুয়ারি শুরু হবে বিশ্ব এজতেমার দ্বিতীয় দফা, ২১জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের বিশ্ব এজতেমা।

প্রায় ১০০বছর আগে ইসলামের দাওয়াতি কাজকে ত্বরান্বিত করতে মাওলানা ইলিয়াছ শাহ (রহ.) দিল্লীর নিজামুদ্দিন মসজিদ থেকে তাবলিগের কাজ শুরু করেন। মাওলানা ইলিয়াছের (রহ.) ছেলে মাওলানা হারুন (রহ.)। তারই ছেলে হলে মাওলানা সাদ কান্ধলভী।

২০১৫সাল থেকে মাওলানা সাদ আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করে আসছেন। এর আগে তিনি টঙ্গীর বিশ্ব এজতেমা ময়দানে শুধু তাবলীগের বয়ান দিতেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরীর আরো খবর