এটা তো কোনো নির্বাচন না : শাহজাহান ওমর

ঝালকাঠি-১ আসনে নৌকার প্রার্থী সাবেক বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বলেছেন, যে নির্বাচন হচ্ছে সেটি আসলে কোনো নির্বাচন নয়। তাঁর মতে এটি প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন নির্বাচন এবং এখানে কোনো মজা পাচ্ছেন না তিনি।

বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রধান কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এসব মন্তব্য করেন।

শাহজাহান ওমর বলেন, ‘এবারকার যে নির্বাচন, কী নির্বাচন পাতছে, এটা তো কোনো নির্বাচন না… আরে ব্যাটা, নির্বাচনে শক্ত কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকলে, ভালো প্লেয়ার না থাকলে, উভয় পক্ষের মিছিল–মিটিং, মাইকিং-স্লোগান না থাকলে সেই নির্বাচনে মজা নাই। যাই হোক, এটা তো শেষ না।’

এসময় তিনি স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, সুযোগ্য সরফরাজ সাহেবের (উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি) নেতৃত্বে আপনারা সকলে আমাকে এবং আমার সাবেক দলের নেতাকর্মী যারা আছেন আপনাদের রুমের ছোট্ট একটু জায়গায় স্থান দেবেন। আমরা আপনাদের সাথে মিলিত হয়ে আপনাদের দলকে আরও সমৃদ্ধশালী করতে চাই। উন্নত থেকে উন্নত করতে চাই। এর উদাহরণ যেন আশপাশের থানায় ছড়িয়ে পড়ে। রাজনীতিতে হৃদয়টা আরও বড় করতে হবে। সংকীর্ণমনায় রাজনীতি হয় না। একটা ভুল করতে পারে অ্যাডজাস্টমেন্ট করার মনমানসিকতা থাকতে হবে। টাউট, বাটপার জুয়াখোর, মদখোর, এটা সেটা ওটা আমি নিজেও পছন্দ করি না। আপনাদের আওয়ামী লীগের মধ্যে যদি থাকে তা কঠোর হস্ত দমন করবেন।

বিএনপির সাবেক এই ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে ধিক্কার জানাই, বিদেশ থেকে বদমাশরা উপদেশ দেয়। যুদ্ধ করে, মানুষ মেরে দেশ স্বাধীন করলাম, আর উপদেশ দেয় এইটা করেন, ওইটা করেন, সেইটা করেন। এই শকুনের স্থান এ দেশে নেই।

আরো পড়ুন  জাতিসংঘের আহ্বান বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে গেছে : তথ্যমন্ত্রী

শাহজাহান ওমর বলেন, শেখ হাসিনা রাষ্ট্র পরিচালনায় অত্যন্ত সুদক্ষ একজন মানুষ। খালেদা জিয়াও সুদক্ষ ছিলেন। তবে উনার ভেতরে অলসতা ছিল। ঘুম থেকে উঠতেন ১২টায়, অফিসে আসতেন দেরিতে। কিন্তু শেখ হাসিনা ভোর ৬টায় উঠে রাত ১২টা পর্যন্ত কাজ করেন।

তিনি বলেন, আস্তে আস্তে আমরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত থেকে উন্নত হব। ভবিষ্যতে আমরা শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ব। যতদিন বাঁচবো আপনাদের মাঝে থাকবো আপনাদের সেবা দেব।

এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সঞ্জীব কুমার বিশ্বাস, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ও রাজাপুর উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মনিরউজ্জামান, রাজাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুল আলম সরফরাজ, সাধারণ সম্পাদক জিয়া হায়দার খান লিটন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আফরোজা আক্তার লাইজুসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *