কোম্পানীগঞ্জে প্রেমের ফাঁদে ফেলে কিশোরীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে বিয়ের প্রলোভনে ১৬ বছরের এক কিশোরীকে গণধর্ষণের অভিযোগে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উপজেলার ২নং পূর্ব ইসলামপুর ইউনিয়নের ভাটরাই গ্রামের রমজান আলী’র পুত্র কবির আহমদ (২২) ও বনপুর গ্রামের রুশন আলীর পুত্র ইসলাম উদ্দিন (১৯)।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি তদন্ত মনিরুজ্জামান খাঁন। তিনি বলেন, শনিবার তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় তিন জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন ভিকটিমের বাবা।

মামলা সূত্রে জানা যায়, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর পশ্চিম ইউনিয়নের ভুক্তভোগী কিশোরীর সঙ্গে অভিযুক্ত কবির প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। পরে পালিয়ে বিয়ে করার প্রলোভন দেখিয়ে গত বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ৯টায় মেয়েটিকে বাড়িতে থেকে ডেকে আনে। পরে তাকে ফুসলিয়ে মোটরসাইকেলে করে বনপুর গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের বসতঘরে নিয়ে দু’জন মিলে রাতভর ধর্ষণ করে। তাদেরকে সহযোগিতা করে ভাটরাই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে সোহান (২১)। পরদিন শুক্রবার ভোর ছয়টায় টুকেরবাজার পয়েন্টে মেয়েটিকে রেখে পালিয়ে যায় ধর্ষকরা।

ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা জানান, মেয়েকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। কোম্পানীগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করলে পুলিশ দ্রুত দু’জন আসামী গ্রেপ্তার করেছে। আমার মেয়ে স্থানীয় একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিল, এবছর পরীক্ষা দিয়ে সপ্তম শ্রেণীতে উঠবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *