পরিচালকের পায়ে ধরা বাকি ছিল, তবুও সিনেমায় নেয়নি : স্বস্তিকা

৪৪ বছরে পা রাখলেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। নিজের রূপ, গুন, অভিনয় দিয়ে দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে টলিউড ইন্ডাস্ট্রি দাপিয়ে বেড়িয়েছেন তিনি।

বলা যায়, স্বস্তিকার সৌন্দর্যে বুঁদ আট থেকে আশি। ৪৪ বছর বয়সেও বর্তমান সময়ের অনেক নায়িকাকে টেক্কা দেন তিনি। তবে নিজের জন্মদিনে এই নায়িকা অকপটেই জানালেন সুন্দরী হওয়াও কখনো বিপদের কারণ হয়েছে তার জীবনে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জুম-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রূপ নিয়ে আফসোসের কথা জানিয়েছেন স্বস্তিকা। যেখানে অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি পর্দার চরিত্রটা যথাসাধ্য চেষ্টা করি বাস্তব সম্মতভাবে ফুটিয়ে তুলতে। সবসময় আমাকে গ্ল্যামারাস, সুন্দরী দেখাতে হবে এমনটা জরুরী নয়। যদি চরিত্রের প্রয়োজনে আমাকে দুঃখী, হতাশ, প্যাথেটিক দেখানোর দরকার হয়, তাহলে নিজেকে সেভাবেই হাজির করতে হবে।’

এক্ষেত্রেই কখনো নিজের রূপ বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে মনে করেন এই অভিনেত্রী। স্বস্তিকার ভাষায়, ‘এমন কত চরিত্র আমার হাতছাড়া হয়েছে শুধুমাত্র আমার রূপের জন্য।’

উদাহরণ টেনে তিনি বলেন, ‘২০১৭ সালে আমার একটা ছবি করার কথা ছিল। নবারুণ ভট্টাচার্যের এক উপন্যাসের ভিত্তিতে তৈরি সেই কাহিনিতে আমি অটোওয়ালার স্ত্রীর ভূমিকায় অভিনয় করতে পারতাম। দুর্দান্ত চরিত্র ছিল। আমি শুধু পরিচালকের পায়ে ধরা বকি রেখেছিলাম চরিত্রটার জন্য। বলেছিলাম, আমি গ্লিসারিনে নিজেকে চুবিয়ে নেব, প্রয়োজনে কাঠফাটা রোদে দাঁড়িয়ে গায়ের রং কালো করব। তবুও পরিচালক আমাকে সেই সিনেমায় নেয়নি। বরং আমাকে বলেছিল, অটোওয়ালার স্ত্রী এতো সুন্দরী হতে পারে না’।

আরো পড়ুন  সিলেটে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১

ওই চরিত্রটায় কাজ না করতে পারার আফসোস এখনও রয়েছে এই নায়িকার। যা নিজের ৪৪তম জন্মদিনে এসে ভক্তদের সঙ্গে শেয়ার করলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, মাত্র ১৮ বছর বয়সে বিয়ে। এরপর বিচ্ছেদ, সিঙ্গেল মাদার নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেই ক্যারিয়ার দাঁড় করিয়েছেন স্বস্তিকা। নিজের একমাত্র মেয়ে অন্বেষার হাত ধরে এখনও এগিয়ে চলেছেন তিনি। খুব শিগগিরই সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের নতুন ছবির কাজ শুরু করবেন স্বস্তিকা। প্রাক্তন প্রেমিক সৃজিতের ছবিতে অপর প্রাক্তন পরমব্রতর সঙ্গে স্ক্রিন শেয়ার করবেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *