বাল্যবিয়ে-আত্মহত্যা বিরোধী সাইকেল র‌্যালিতে শিক্ষার্থীরা

‌‘আমার জীবন আমার অধিকার, বাল্যবিয়ে রুখবো এবার’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে রাজবাড়ীতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নারী সাইক্লিস্টদের অংশগ্রহণে বাল্যবিয়ে ও আত্মহত্যা বিরোধী ব্যতিক্রমধর্মী এক সাইকেল র‍্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় জেলা পুলিশের আয়োজনে ও প্রান্তিক জনকল্যাণ সংস্থার সহযোগিতায় পুলিশ সুপার কার্যালয় থেকে নারীদের নিয়ে এই সাইকেল র‍্যালির উদ্বোধন করেন জেলা পুলিশ সুপার জি.এম.আবুল কালাম আজাদ।

সাইকেল র‍্যালিতে রাজবাড়ীর বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ অনলাইন প্লাটফর্মের শতাধিক নারী সাইক্লিস্ট অংশগ্রহণ করে। এছাড়াও পায়ে হেঁটে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দুই শতাধিক নারী শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। র‍্যালিটি পুলিশ সুপার কার্যালয় থেকে বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আবার একই স্থানে এসে শেষ হয়েছে।

সাইকেল র‍্যালিতে অংশ নেওয়া রোকসানা নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, আজকের এই সাইকেল র‍্যালির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে পরিবারের বড়দেরকে ও মেয়েদেরকে সচেতন করা। যেন পরিবারের প্রত্যেক মেয়েদেরকে ১৮ বছরের আগে বিয়ে দেওয়া না হয়। আজকের এই সাইকেল র‍্যালির মাধ্যমে আমাদের বার্তা হলো- ১৮ বছরের আগে কোনো মেয়েকে যাতে তাদের পরিবার বিয়ে না দেয়।

র‍্যালিতে আসা একাধিক ছাত্রী বলেন, বর্তমান সমাজে বাল্যবিয়ে ও আত্মহত্যার প্রবণতা অনেক বেড়ে গেছে। আত্মহত্যার প্রবণতা বেড়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ বাল্যবিয়ে। তাই আমাদের সকলের পরিবারের উচিত বাল্যবিয়ে না দেওয়া। আজকের এই র‍্যালির মাধ্যমে আমরা বাল্য বিবাহের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলবো।যাতে অল্প বয়সে আর কোনো মেয়ের জীবন নষ্ট না হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা পুলিশ সুপার জি.এম.আবুল কালাম আজাদ বলেন, সাইকেল লাভার রাজবাড়ী ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন প্রান্তিক জনকল্যাণ সংস্থা সমাজে মাদক বিরোধী কর্মকাণ্ড ও বাল্যবিয়ে-আত্মহত্যা রোধে কাজ করে থাকে। বাংলাদেশে আত্মহত্যার প্রবণতা আগের থেকে অনেকটা বেড়েছে। তাই আমরা যদি সমাজের মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে পারি তাহলে আত্মহত্যার প্রবণতা কমানো সম্ভব। এ ছাড়া সমাজ থেকে মাদক নির্মূল করাও সম্ভব। জেলা পুলিশ এ ধরনের ভালো উদ্যোগের সঙ্গে সবসময় পাশে থাকবে।

আরো পড়ুন  ফেনীতে পিকআপ চাপায় নিহত ২

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মো.রেজাউল করিম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. ইফতেখারুজ্জামান ও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.ইফতেখারুল আলম প্রধানসহ অনেকেই।

উল্লেখ্য, রাজবাড়ি জেলায় ২০২৩ সালে এ পর্যন্ত ১২২টি আত্মহত্যার ঘটনায় থানায় রিপোর্ট হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *