রংপুরে শিরীন শারমিন, টিপু মুনশিসহ ১৫ প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী ও বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশিসহ ১৫ প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

রোববার (৩ ডিসেম্বর) সকাল থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত রংপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যাচাই-বাছাই কার্যক্রমের দ্বিতীয় দিনে রংপুর-৪ (পীরগাছা ও কাউনিয়া), রংপুর-৫ (মিঠাপুকুর) এবং রংপুর-৬ (পীরগঞ্জ) আসনে ২২ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হয়।

এতে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোবাশ্বের হাসান ১৫ জন প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ, ৪ জনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা এবং তিনজনের মনোনয়নপত্র স্থগিত করেন।

এর মধ্যে রংপুর-৪ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তফা সেলিম বেঙ্গল, বাংলাদেশ কংগ্রেসের সিরাজুল ইসলাম ও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত স্বতন্ত্র প্রার্থী হাকিবুর রহমান মাস্টারকে মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই আসনে চারজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।

অপরদিকে রংপুর-৫ আসনে নয়জন মনোনয়ন ফরম জমা করেছিলেন। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রাশেক রহমান, জাতীয় পার্টির আনিছুর রহমান, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মাহবুবুর রহমান, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের আব্দুল হালিম মণ্ডল, ইসলামী ফ্রন্ট বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী এনামুল হক, জাকের পার্টির শামীম মিয়া এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ফ্রন্টের (বিএনএফ) আব্দুল বাতেনের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এদিকে মামলা সংক্রান্ত তথ্য গোপনের অভিযোগ এনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সদ্য পদত্যাগ করা মিঠাপুকুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সরকারের মনোনয়ন স্থগিত করা হয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির আব্দুল ওয়াদুদ মিয়ার মনোনয়ন ফরম স্থগিত করা হয়।

আরো পড়ুন  পটুয়াখালীতে দাম ও ফলন ভালো হওয়ায় বাড়ছে বোরো চাষ

এ ছাড়া রংপুর-৬ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান সংসদ সদস্য স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, জাতীয় পার্টির প্রার্থী নুর আলম যাদু মিয়া, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির হুমায়ুন ইজাজ, বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির জাকারিয়া হোসেনের মনোনয়ন বৈধ হয়েছে।

মনোনয়ন বাতিল হয়েছে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল ইসলাম, তৃণমূল বিএনপির ইকবাল হোসেন, বাংলাদেশ কংগ্রেসের মাহবুল আলম এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী তাকিয়া জাহান চৌধুরীর। এছাড়া জাকের পার্টির প্রার্থী বেদারুল ইসলামের মনোনয়ন স্থগিত করা হয়েছে।

এর আগের দিন শনিবার মনোনয়ন ফরম যাচাই-বাছাইয়ে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের, সংসদের বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গাসহ ১৯ প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। ওই দিন রংপুর-১ (গঙ্গাচড়া ও আংশিক সিটি কর্পোরেশন), রংপুর-২ (বদরগঞ্জ-তারাগঞ্জ) এবং রংপুর-৩ (সদর ও সিটি কর্পোরেশন) আসনে ২৭ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই হয়।

এতে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোবাশ্বের হাসান ১৯ জন প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ, পাঁচজনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা এবং তিনজনের মনোনয়নপত্র স্থগিত করেন।

রংপুরের সংসদীয় ছয়টি আসনে ৪৯ জন প্রার্থী মনোনয়ন ফরম জমা দিয়েছিলেন বলেও জানান তিনি। বর্তমানে মনোনয়ন যাচাই-বাছাই শেষে ছয়টি আসনে ৩৪ জন প্রার্থী বৈধ হিসেবে নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অংশ নিচ্ছেন।

উল্লেখ্য, নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়ন ফরম যাচাই-বাছাই ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর। মনোনয়ন আপিল ও নিষ্পত্তি ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ১৭ ডিসেম্বর। প্রতীক বরাদ্দ হবে ১৮ ডিসেম্বর এবং নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত চলবে। ভোটগ্রহণ আগামী বছরের ৭ জানুয়ারি (রোববার) অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য ৬৬ জন রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং ৫৯২ জন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তার নিয়োগ চূড়ান্ত করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *