এডিবির সঙ্গে ৪০০ মিলিয়ন ডলারের ঋণচুক্তি

বাংলাদেশ সরকার ও এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের মধ্যে (এডিবি) ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণচুক্তি ঢাকায় স্বাক্ষরিত হয়েছে। জলবায়ুকেন্দ্রিক অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন অর্জনের লক্ষ্যে ওই অর্থ ছাড় করবে এডিবি।

সোমবার (১১ ডিসেম্বর) অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে ঋণচুক্তি সই হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মো. শাহরিয়ার কাদের ছিদ্দিকী ও এডিবির পক্ষে বাংলাদেশ আবাসিক মিশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিনটিং নিজ নিজ পক্ষে ঋণচুক্তি স্বাক্ষর করেন। ঋণচুক্তি স্বাক্ষরকালে বাংলাদেশ ও এডিবির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, বাংলাদেশ সরকার এবং এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) মধ্যে ক্লাইমেট রিসাইলেস্ট ইনক্লুসিভ ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রাম শীর্ষক কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণচুক্তি ঢাকায় স্বাক্ষরিত হয়। অর্থ বিভাগ অন্যান্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সহায়তায় এ নীতি সংস্কারমূলক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য হলো—

(ক) গ্রিন হাউস গ্যাস কমানো এবং তুলনামূলক কার্বনহীন অর্থনীতিতে রূপান্তর; (খ) টেকসই এবং জলবায়ু কেন্দ্রিক উন্নয়ন পরিক্রমা সহজতর করা; এবং (গ) জলবায়ুর পরিবর্তনের ফলে সৃষ্ট বিরূপ অবস্থার ঝুঁকি হ্রাস এবং সহনশীলতা শক্তিশালীকরণ। ঋণচুক্তি অনুযায়ী এ কর্মসূচির পূর্বশর্তসমূহ ইতিমধ্যে অর্জিত হয়েছে।

এডিবি বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান উন্নয়ন সহযোগী। বাংলাদেশ ১৯৭৩ সালে এর সদস্যপদ লাভ করার পর থেকে এ সংস্থা তাদের আর্থিক সহায়তার একটি বড় অংশ বাংলাদেশকে প্রদান করে আসছে। এডিবি এ পর্যন্ত বাংলাদেশ সরকারকে ৩১ হাজার ৩১৬.৪৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের ঋণসহায়তা এবং ৫৭১.২ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের অনুদান সহায়তা প্রদান করেছে।

আরো পড়ুন  বেসিক ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশে উন্নয়ন সহায়তার ক্ষেত্রে এডিবি প্রধানত বিদ্যুৎ, জ্বালানি, পরিবহন, শিক্ষা, স্থানীয় সরকার, কৃষি, পানি সম্পদ এবং সুশাসন সেক্টরকে প্রাধান্য দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *