ভুঁড়ি কমাতে চান? পান করতে হবে এই ৫ জুস

ওজন কমানো আর ভুঁড়ি কমানো এক কথা নয়। নানা নিয়ম মানার পরে ওজন কমলেও নাছোড়বান্দা ভুঁড়ি কমতে চায় না সহজে। এটি কেবল আপনার সৌন্দর্যই নষ্ট করে না, নানা শারীরিক সমস্যাও ডেকে আনে। আবার অনেক প্রচেষ্টার পর যদি ভুঁড়ি না কমে তাহলে চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া কঠিন মনে হয়। একটুতেই হতাশ লাগে আর হাল ছেড়ে দিতে ইচ্ছা হয়। ভুঁড়ি কমানোর জন্য নিয়মিত ব্যায়াম করাই যথেষ্ট নয়। সেইসঙ্গে আপনাকে নজর দিতে হবে খাবারের দিকেও। ৫ রকমের জুস আছে, যেগুলো খুব একটা সুস্বাদু নয়, কিন্তু নিয়মিত পান করতে পারলে খুব সহজেই ভুঁড়ি কমানো যাবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-

১. করলার জুস

করলার তেতো ভাবের জন্য এই সবজি অনেকে খেতে চান না, সেখানে একেবারে করলার জুস! কিন্তু যতই তেতো হোক না কেন, এই জুসের উপকারিতা ভীষণ মিষ্টি। আপনি নাক-চোখ বন্ধ করে কোনোরকম একবার গিলে ফেলতে পারলেই হবে। প্রতিদিন সকালে করলার জুস পান করলে বাড়তি ভুঁড়ি নিয়ে আপনাকে আর দুশ্চিন্তা করতে হবে না। এতে ক্যালোরির পরিমাণ থাকে খুব কম আর থাকে ফ্যাট ঝরানোর নানা গুণ।

২. আমলকির জুস

আমলকির জুস ভীষণ উপকারী। কারণ আমলকীতে থাকা নানা স্বাস্থ্যকর উপাদান। প্রতিদিন সকালে খালি পেটে আমলকির জুসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেলে দারুণ উপকার পাবেন। এটি ওজন কমাতেও কার্যকরী। সবচেয়ে বেশি উপকারিতা মিলবে খালি পেটে খেলেই। নিয়মিত খেতে পারলে দেখবেন আপনার ভুঁড়ি কমছে দ্রুতই। এটি আপনাকে সারাদিন সতেজ রাখতেও কাজ করবে।

আরো পড়ুন  শীতে ত্বক ভালো রাখার ঘরোয়া উপায়

৩. গাজর-মুলার জুস

আধাকাপ গাজর একদম গ্রেড করে নিন। এবার আধাকাপ মুলাও গ্রেড করে রাখুন। এরপর তার সঙ্গে মেশান দেড় কাপ পানি। এই তিন উপকরণ একটি পরিষ্কার হাঁড়িতে ফুটিয়ে নিন। ৩ থেকে ৪ মিনিট ফুটিয়ে নিলেই যথেষ্ট। এরপর নামিয়ে কিছুটা ঠান্ডা করে সবজিগুলো চিবিয়ে খেয়ে নিন আর পানিটুক পান করুন। এভাবে দিন দশেক প্রতিদিন একবার করে খান। এরপর কয়েকদিন বিরতি দিয়ে আবার দশদিন পান করুন। এই নিয়ম এক মাস পালন করতে পারলেই উপকার পাবেন।

৪. বেদানার রস

বেদানার রয়েছে নানা গুণ। এর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্য ওজন কমাতে দারুণ কার্যকরী। নিয়মিত বেদানা খেলে হজমশক্তি ভালো থাকে। বেদানার রস খেলে তা ভুঁড়ি কমাতে এবং ওজন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। বেদানা দীর্ঘ সময় পেট ভরিয়ে রাখতে পারে। ফলে ক্ষুধা কম লাগে। যে কারণে বার বার খাবার খাওয়ার ফলে ওজন বেড়ে যাওয়ার ভয় থাকে না। নিয়মিত বেদানার জুস পান করুন। এতে ভুঁড়ি তো কমবেই, সুস্থ থাকাও সহজ হবে।

৫. লাউয়ের রস

লাউ একটি সুস্বাদু সবজি। এটি কেবল রান্না করেই খাওয়া যায় না, কাঁচাও উপকারী। বিশেষ করে লাউয়ের রস আপনার বাড়তি ওজন ও ভুঁড়ি কমাতে দারুণ কার্যকরী। লাউয়ের রস খলে তা ফ্যাট ঝরাতে সাহায্য করে। লাউ রান্না করে তো খাবেনই, সেইসঙ্গে প্রতিদিন সকালে লাউয়ের জুস খাবেন। এতে পার্থক্যটা নিজেই দেখতে পাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *