স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া এড়াতে যা করবেন

সম্পর্ক সুন্দর রাখার জন্য সঠিকভাবে কথা বলতে জানা এবং দ্বন্দ্ব হলে তা সমাধান করতে জানা জরুরি। এটি দাম্পত্য সম্পর্কের ক্ষেত্রেও সত্যি। কখনো কখনো এমন হয় যে, চেষ্টা করেও আপনি মেজাজ ধরে রাখতে পারবেন না। আপনি বুঝতে পারছেন যে ঝগড়ার সম্ভাবনা বাড়ছে, কিন্তু নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছেন না। এমন অবস্থায় কী করবেন? অপ্রয়োজনীয় দ্বন্দ্ব এড়াতে আপনাকে কিছু কৌশল অবলম্বন করতে হবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক-
১. মনোযোগ দিয়ে শুনুন

আসন্ন ঝগড়া ঠেকানোর পূর্ব প্রস্তুতির মধ্যে একটি হলো মনোযোগ দিয়ে শোনা এবং স্ত্রীর প্রতি সহানুভূতি দেখানো। যখন বুঝতে পারবেন যে মতানৈক্য ঘটছে, স্মার্ট হোন। আত্মরক্ষামূলক প্রতিক্রিয়া না দেখিয়ে তাদের স্ত্রীর উদ্বেগ বা অভিযোগ মন দিয়ে শোনার চেষ্টা করুন। তার চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলার চেষ্টা করুন। আপনি যে মন দিয়ে তার কথা শুনছেন, তা তাকে বুঝতে দিন। তাকে সহানুভূতি দেখালে সমস্যাটি খুব বেশি বাড়তে পারবে না।

২. বিরতি নিন

যদি ঝগড়া বেঁধেই যায়, তা খুব বেশি সময় চালিয়ে যাবেন না। যত দ্রুত সম্ভব ঝগড়ায় লাগাম টানুন বা বিরতি নিন। আসলে এটি আপনাদের ঝগড়া থামিয়ে দিতে কাজ করবে। আপনি যদি দ্বন্দ্ব না চান তাহলে একটু সময় চেয়ে নিন। তার ঝগড়ার সঙ্গে তাল মেলাবেন না। কিছুটা সময় বিরতি নিয়ে ভাবুন। কী করলে এর সহজ সমাধান হবে তা খুঁজে বের করুন। রেগে গিয়ে হয়তো এমন কিছু বলে ফেলতে পারেন যা আপনার স্ত্রীকে কষ্ট দেবে। তাই কিছুক্ষণের জন্য চুপ হয়ে যান। চুপ থাকাই অনেক সময় অনেককিছুর সমাধান করে দেয়। সংঘর্ষের পরিবর্তে গঠনমূলক সমাধানের দিকে এগিয়ে যান।

আরো পড়ুন  কখন বুঝবেন আপনার বিরতি নেওয়া প্রয়োজন?

৩. শান্তভাবে অনুভূতি প্রকাশ করুন

প্রতিরক্ষামূলক বা আক্রমণাত্মক প্রতিক্রিয়া অবলম্বন করবেন না। এর বদলে আপনার অনুভূতিগুলো শান্ত এবং দৃঢ়ভাবে প্রকাশ করতে শিখুন। তাকে দোষ না দিয়ে আপনার আবেগ এবং দৃষ্টিভঙ্গি জানান। শান্ত থাকার চেষ্টা করুন। রেগে গেলেই আপনি খেই হারিয়ে ফেলবেন। মানুষ রাগের মাথায় যা কিছু বলে, তার বেশিরভাগই থাকে অপ্রয়োজনীয়। তাই চেচামেচি করে আপনি যতটুকু সমাধান করতে পারবেন, শান্তভাবে কথা বললে তার থেকে অনেক বেশি সমাধান করতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *