‘আগামী ৩৪ দিন গুরুত্বপূর্ণ, সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে’

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সামনের দিনগুলোকে গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে নির্বাচনকালীন সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সবাইকে সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়েছেন।

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে সচিবালয়ে এসে বিভাগের সম্মেলন কক্ষে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে বৈঠকের শুরুতে তিনি এ আহ্বান জানান। এসময় ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব আবু হেনা মোরশেদ জামান কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষে তাকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন। বৈঠকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ এবং অধীন দপ্তর-সংস্থার শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

পলক বলেন, আগামী ৩৪টি দিন আমাদের দৈনন্দিন কাজ, আমি সবাইকে অনুরোধ করবো এই গুরুত্বপূর্ণ সময়ে আপনারা সবাই সতর্কতার সঙ্গে আপনাদের দায়িত্ব পালন করবেন। আমাদের ডাক ও টেলিযোগাযোগ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ। কারণ টেলিকম কমিউনিকেশন যদি চলমান না থাকে তাহলে আমাদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বাণিজ্য সব কিছুই কিন্তু ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যাবে। আমাদের ডাক যদি চালু না থাকে তাহলে আমাদের যে লজিস্টিকস, আমাদের সব পণ্য আনা নেওয়া করা সেটাই কিন্তু একটা দুর্ভোগের মধ্যে পড়ে যাবে।

তিনি বলেন, দুর্ভাগ্যবশত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে এই ১৫ বছরের অর্ধেকটা সময় কিন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগ কিংবা মনুষ্য সৃষ্ট দুর্যোগের মোকাবিলা করতে হয়েছে। একদিকে ২০১৩, ১৪, ১৫ তিন বছর অগ্নি সন্ত্রাস, গণতন্ত্রের পথকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য রাজনৈতিক আন্দোলনের নামে ভাঙচুর, মানুষ পোড়ানো, বাস পোড়ানো এগুলো চলেছে। তারপর ২০১৭, ১৮, ১৯ এই তিনটা বছর তিনি নির্বিঘ্নে দেশের মানুষের জন্য কাজ করতে পেরেছেন। এরপরে ২০২০-২১ আবার কিন্তু করোনা। আবার ২০২২-২৩ একবার ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ আরেকবার ফিলিস্তিন-ইসরায়েল যুদ্ধ। সব কিছু মিলিয়ে খেয়াল করে দেখবেন যে ১৫ বছরের অর্ধেকটা সময় কিন্তু মনুষ্য সৃষ্ট এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে।

আরো পড়ুন  ইসির নির্দেশে সুনামগঞ্জ ও ময়মনসিংহের ডিসিকে বদলি

বিরোধী দলের রাজনৈতিক কর্মসূচি নিয়ে পলক বলেন, এখন আমরা দেখছি হরতাল-অবরোধের নামে একটা রাজনৈতিক দল, একটা রাজনৈতিক গোষ্ঠী দেশি-বিদেশি চক্রান্ত ও ষড়যন্ত্র করে প্রতিদিন নিরীহ মানুষের ওপর আক্রমণ করছে। অত্যন্ত একজন নিরীহ ট্রাক চালক মারা গেছে। অসংখ্য গাড়ি পোড়াচ্ছে, রাস্তায় অবরোধ করছে।

‘সেই সময়ে আমাদের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রত্যেকটি প্রতিষ্ঠানকে খুব সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করতে হবে। ডাক বিভাগকে চলমান রাখতে হবে সব পণ্য, গুরুত্বপূর্ণ তথ্য-উপাত্ত চিঠিপত্র লেনদেন করা; আমাদের বিটিআরসিকে দায়িত্ব পালন করতে হবে অত্যন্ত দায়িত্বশীলতার সঙ্গে যাতে আমাদের টেলিকমিউনিকেশন কোনো রকম বাধা না হয়। অপরদিকে আমাদের স্যাটেলাইট কমিউনকেশনকেও চালু রাখতে হবে বিনোদন, যোগাযোগ এবং যাতে আমাদের টেলিভিশন সেন্টারগুলো নির্বিঘ্নে কাজ করতে পারে। অপরদিকে আমাদের সাবমেরিন কেবল, আপনারা জানেন বহির্বিশ্বের সঙ্গে আমরা টেরিস্টেরিয়ালে যুক্ত, সাবমেরিনে যুক্ত। এমন কোনো বিষয় নেই যেখানে বাংলাদেশ আসলে অবস্থান রাখেনি।’

পলক বলেন, ১৯৭৩ সালের ৫ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের সদস্যপদ গ্রহণ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু, ১৯৭৫ সালের ১৪ জুন স্যাটেলাইটের আর্থ স্টেশন স্থাপন করেছিলেন, আজকে বঙ্গবন্ধুকন্যার নেতৃত্বে আমাদের নিজস্ব স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১ মহাকাশে। আমরা স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি।

‘আমি সবাইকে অনুরোধ করবো এই দৈনন্দিন কাজগুলো অত্যন্ত সততার, স্বচ্ছতা, নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবো। যেন নির্বাচনকালীন আমাদের কোনো ধরনের যোগাযোগ এবং সেবা যাতে বিঘ্ন না ঘটে। আমাদের রাষ্ট্রীয়, সরকার এবং জনগণের কোনো সেবা যেন ব্যাহত না হয়।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *