ইসিতে প্রার্থীদের আপিলে যে রায় হলো

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দায়ের করা আপিলের শুনানি নির্বাচন ভবনে শুরু হয়েছে।

রোববার (১০ ডিসেম্বর) সকাল ১০টায় আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের অডিটোরিয়ামে (ব্যাজমেন্ট-২) এই কার্যক্রম শুরু হয়। আপিল শুনানিতে প্রার্থীদের বক্তব্য শুনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালসহ অন্য নির্বাচন কমিশনাররা রায় দিচ্ছেন।

প্রার্থীদের আপিলের রায় পর্যায়ক্রমে দেওয়া হলো-

টাঙ্গাইল-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী খন্দকার আহসান হাবীবেব আপিল নামঞ্জুর ও টাঙ্গাইল-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনুস ইসলাম তালুকদার আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে। এছাড়া টাঙ্গাইল-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ মাহমুদুল ইলাহ অনুপস্থিত বলা হয়েছে। টাঙ্গাইল-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী এটিএম আনিছুর রহমান বুলবুলের আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে।

জামালপুর-২ আসনের জাকের পার্টির প্রার্থী আব্দুল হালিম মন্ডলের আপিল নামঞ্জুর এবং জামালপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জিয়াউল হক জিয়ার আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

যশোর-১ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী মো. আক্তারুজ্জামান, যশোর-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী এস এম হাবিবুর রহমানের আপিল মঞ্জুর, যশোর-৩ আসনের জাকের পার্টির প্রার্থী মহিদুল ইসলাম এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহিত কুমার নাথের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে। এছাড়া, যশোর-৫ আসনের বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের প্রার্থী শেখ নুরুজ্জামানের আপিল মঞ্জুর এবং একই আসনের জাকের পার্টির প্রার্থী হাবিবুর রহমানের আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে। যশোর-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসাইন মোহাম্মদ ইসলামের আপিল নামঞ্জুর ও একই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আজিজুল ইসলামের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

নোয়াখালী-২ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী তালেবুজ্জামানের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

আরো পড়ুন  সাংবাদিককে কারাদণ্ড : সুষ্ঠু তদন্তে জোর দিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী

কিশোরগঞ্জ-৩ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী নাসিরুল ইসলাম খানের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

ফরিদপুর-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আরিফুর রহমান এবং একই আসনের আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহমুদা বেগমের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

গোপালগঞ্জ-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ কবির মিয়ার আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

নেত্রকোনা-১ আসনের জাকের পার্টির প্রার্থী ছমীর উদ্দিনের আপিল নামঞ্জুর ও নেত্রকোনা-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সুব্রত চন্দ্র সরকারের আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে।

খুলনা-৪ আসনে তৃণমূল বিএনপির প্রার্থী শেখ হাবিবুর রহমানের আপিল মঞ্জুর এবং একই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী এস এম মোর্ত্তজা রশিদী দারার আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে। এছাড়া, খুলনা-৬ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী শফিকুল ইসলাম মধুর আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিনের আপিল মঞ্জুর, চট্টগ্রাম-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ শাহজাহানের আপিল মঞ্জুর, চট্টগ্রাম-৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ইমরানের আপিল নামঞ্জুর, চট্টগ্রাম-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ শাহজাহান চৌধুরীর আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে। চট্টগ্রাম-৮ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিকুল আবদুচ সালামের আপিল মঞ্জুর ও চট্টগ্রাম-১৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল মোতালেবের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

বরগুনা-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী খলিলুর রহমান ও একই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ নুরুল ইসলামের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

মেহেরপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোখলেসুর রহমানের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

মুন্সিগঞ্জ-১ আসনের বিকল্পধারা বাংলাদেশের (বিডিবি) প্রার্থী মাহি বদরুদ্দোজা চৌধুরীর আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনের বিএনএফ প্রার্থী মো. বাছু শেখ আপিল মঞ্জুর এবং একই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সোহানা তাহমিনার আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে। মুন্সিগঞ্জ-৩ আসনের বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের (বিএনএফ) প্রার্থী মমতাজ সুলতান আহমেদের আপিলের বিষয়ে পরে জানানো হবে।

আরো পড়ুন  সংরক্ষিত নারী আসনের সব প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ : রিটার্নিং কর্মকর্তা

ময়মনসিংহ-১০ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ আবুল হোসেনের আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে।

রংপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী বিশ্বনাথ সরকারের আপিল মঞ্জুর এবং একই আসনের বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টির (বিএসপি) প্রার্থী মোহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিনের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে। রংপুর-২ আসনের বিএনএফ প্রার্থী মো. জিল্লুর রহমানের আপিল আদেশ পরে জানানো হবে।

মাদারীপুর-২ আসনের বাংলাদেশ সুপ্রিম পার্টি প্রার্থী ইউসুফ আলী সুমনের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

বগুড়া-৭ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আসাফুদ্দৌলা, স্বতন্ত্র প্রার্থী মুস্তাফিজুর রহমান নিলু ও বগুড়া-৭ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জুলফিকার আলীর আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে।

কুষ্টিয়া-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ফিরোজ আল মামুনের আপিল আদেশ পরে জানানো হবে।

ঢাকা-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল হাসানের আপিল মঞ্জুর এবং ঢাকা-১২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী খোরশেদ আলম খুশুর আপিল আদেশ পরে জানানো হবে।

বরিশাল-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ শামসুল আলমের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে। রাজবাড়ী-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী স্বপন কুমার সরকারের আপিল নামঞ্জুর করা হয়েছে। সিলেট-২ আসনের তৃণমূল বিএনপি প্রার্থী আব্দুর রবের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে। কুমিল্লা-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী এম এ জাহেরের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে। কক্সবাজার-১ আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী সালাউদ্দিন আহমেদের আপিল আদেশ পরে হবে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ নজরুল ইসলামের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে। গাইবান্ধা-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহ সারোয়ার কবিরের আপিল মঞ্জুর করা হয়েছে।

আপডেট চলবে…

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারা দেশে মোট দুই হাজার ৭১৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এর মধ্যে এক হাজার ৯৮৫ জন প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ এবং ৭৩১ জন প্রার্থীর মনোনয়ন অবৈধ ঘোষণা করে সংস্থাটি।

আরো পড়ুন  বিএনপি নির্বাচনে এলেও ২৮ জানুয়ারির মধ্যেই ভোট : ইসি রাশেদা

তফসিল অনুযায়ী, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৭ ডিসেম্বর। রিটার্নিং কর্মকর্তারা প্রতীক বরাদ্দ করবেন ১৮ ডিসেম্বর। নির্বাচনী প্রচার চলবে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত। ভোটগ্রহণ হবে ৭ জানুয়ারি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *