বিএনপি-জামায়াত দেশের মানুষের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে : নাছিম

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, বিএনপি জামায়াত ভোট ঠেকানোর নামে দেশের মানুষের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানি বাহিনী, রাজাকার, আল বদররা যেভাবে দেশের সাড়ে ৭ কোটি মানুষের বিপক্ষে যুদ্ধ করেছিল একইভাবে আজ বিএনপি জামাতিরা দেশের মানুষের ওপর আঘাত আনছে। মা তার সন্তানকে নিয়ে ট্রেনে ঘুমিয়ে ছিল এই ট্রেনে বিএনপির অগ্নি সন্ত্রাসীরা আগুন দিয়ে তাদের পুড়িয়ে মেরেছে। এতটা মর্মান্তিক দৃশ্য। এ অপকর্ম যারা করে তারা কখনো দেশের মানুষকে ভালবাসতে পারে না।

বৃহস্পতিবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বঙ্গবন্ধু পরিষদ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, আজকে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণের বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে বিএনপি জামায়াত। এরা সন্ত্রাসী ও দেশবিরোধী অপশক্তি। এরা অপরাধনীতি করে। বিএনপি যা করছে তা রাজনীতি নয় বিশ্বাসঘাতকতা। এরা অগ্নি সন্ত্রাসের মাধ্যমে দেশের মানুষকে পুড়িয়ে মারে। এরা সাম্প্রদায়িক শক্তির আশ্রয় ও প্রশ্রয়দাতা। বাঙালি জাতির হাজার বছরের যে সাম্প্রদায়িক ঐতিহ্য রয়েছে এ সাম্প্রদায়িক বন্ধনকে এরা ধ্বংস করতে চায়।

তিনি আরও বলেন, মানুষ পুড়িয়ে মারা কখনো দেশের মানুষের অধিকারের আন্দোলন হতে পারে না। দেশের মানুষ কেন তাদের সমর্থন করবে? দেশের মানুষ তাদের সমর্থন করে না বলেই তারা সন্ত্রাসের পথে হাঁটছে। এরা জঙ্গি কায়দায় চোরা গুপ্তা হামলা করে। দেশের মানুষের বিপক্ষে এদের এই রাজনীতিকে ধিক্কার জানাই। এদের এ রাজনীতির প্রতি আমাদের ঘৃণা।

আরো পড়ুন  নৌকার মাঝি হয়ে লড়বেন যেসব নারী

নাছিম বলেন, আগামী ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণের তাফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাচনের কার্যক্রম ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। ১৮ তারিখ প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এখন যারা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে তারা মানুষের কাছে ভোট চাইতে যাচ্ছে। আমরা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীর প্রার্থী হিসেবে মানুষের কাছে যাওয়া শুরু করেছি এবং ভোট প্রার্থনা করছি। যাতে একটি সুষ্ঠু ও সুন্দর নির্বাচন আমরা জাতিকে উপহার দিতে পারি। আমরা জনগণের রায় নিয়ে আবারও জিততে চাই।

ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আগামী ৭ জানুয়ারি সবাই ভোট কেন্দ্রে যাবেন এবং ভোট দেবেন। আমি আপনাদের কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চাই। কেননা যেভাবে বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি হচ্ছে নৌকায় ভোট দিলে সেটি আরও বেগবান হবে কথা দিচ্ছি আপনারা আমাকে পাশে পাবেন। আপনজনের মতো পাশে থাকব। আমি আপনাদের এলাকার সেবক হিসেবে কাজ করতে চাই। সেজন্য আপনাদের সহযোগিতা চাই।

তিনি বলেন, আমি জানি আমার এলাকার মানুষের কী সমস্যা। সেই সমস্যাগুলো সমাধান করব। ঢাকা-৮ স্মার্ট এলাকায় পরিণত হবে। আমার এলাকার মানুষের প্রত্যাশা পূরণে আলোচনা করে কাজ করব। সুখে-দুঃখে পাশে থাকব। শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রেখে কিভাবে এই এলাকাকে আরও উন্নত করা যায় সেই চেষ্টাই করব। সামাজিক, সাংগঠনিক ও রাজনৈতিক আন্দোলন গড়ে তুলব। সুন্দর সমাজ, সুন্দর এলাকা গড়ে তুলব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *