বাংলাদেশের টেস্টে শাহাদাত দিপুর অভিষেক

দিন যত বদলেছে ততই আধুনিকায়ন হয়েছে ক্রিকেটের। ক্রিকেটে এসেছে গতি। কমেছে সময়ের ব্যাপ্তি। ৫ দিনের ক্রিকেট নেমেছে একদিনে। এখন তো চলছে টি-২০ ক্রিকেটের যুগ। লাল বলের টেস্ট ক্রিকেট বাদ দিয়ে ওয়ানডে আর ক্রিকেটে মনযোগী হতে চাওয়া ক্রিকেটারের সংখ্যা নেহাত কম না। তবে এতকিছুর পরেও এখনও টেস্ট ক্রিকেটের মান কমেনি।
সারাবিশ্বে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক বেশ ঘটা করেই দেখা দেখা হয়। টেস্টের বিশেষ ক্যাপের জন্য রীতিমত সংগ্রাম করতে হয় ক্রিকেটারদের। তবে বাংলাদেশে যেন ব্যাপারটা একেবারেই ভিন্ন। ঘনঘন টেস্ট করানোর বেলায় বাংলাদেশের জুড়ি মেলা ভার। নিজেদের ১২৮তম টেস্টেই শততম টেস্ট ক্রিকেটার পেয়ে গিয়েছিল টাইগাররা। আজ ১৩৯তম টেস্টে এসে দেখা গেল ১০২তম টেস্ট ক্রিকেটারকে।
সিলেটে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের ১ম টেস্টে জাতীয় দলের ১০২তম টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক ঘটলো শাহাদাত হোসেন দিপুর। দেশের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মুমিনুল হকের কাছ থেকে বিশেষ টেস্ট ক্যাপ বুঝে নেন এই তরুণ।
বাংলাদেশ ক্রিকেটে এখন শুরু হয়েছে নতুন এক হাওয়া। ২০২০ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী দল থেকে অনেকেই এখন টাইগার ক্রিকেটের ভরসার স্তম্ভ। তাওহিদ হৃদয় বা শরীফুল হাসান তো নিয়মিত মুখ। তানজিদ হাসান তামিম, তানজিম সাকিবরাও খেলছেন নিয়মিত। আছেন মাহমুদুল হাসান জয়ও। বিশ্বকাপ জিতে আসা সেই দলটারই মিডল অর্ডারে খেলতেন দিপু। স্বাভাবিকভাবেই তাই ছিলেন বিসিবির গুডবুকে। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত পারফর্ম করার পুরষ্কারটা মিলছে এখন। সাদা পোশাকে অভিষেক হলো দিপুর।
অবশ্য এমন অভিষেক আকস্মিক না। জাতীয় দলে আসার আগেই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নিজেকে পোক্ত করেছেন চট্টগ্রামের এই ক্রিকেটার। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত বড় রান করেছেন মিডল অর্ডারের এই ব্যাটার। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে দিপু রান করেছেন প্রায় ৩৭ গড়ে। খেলেছেন সর্বোচ্চ ১৫৯ রানের ইনিংস। নির্বাচক আর ক্রিকেট সংশ্লিষ্টদের বক্তব্য, বড় ইনিংস খেলার সামর্থ্য আছে এই ব্যাটারের। ৪০ ইনিংসে করেছে ১ হাজার ৩শ এর বেশি রান।
লোকাল কোচদের অনেকেই দিপুর ব্যাটিং টেকনিকও নিয়ে আশাবাদী। এমনকি তার ব্যাটিং দেখে মুগ্ধতা ঝরেছিল লিটন দাসের মাঝেও। গতবছর বিসিএলে সেঞ্চুরি করার পর দিপুকে নিজের ব্যাট উপহার দিয়েছিলেন লিটন। সেই লিটনের জায়গাতেই এবার খেলতে হচ্ছে দিপুকে। সাদা বলে বিশ্বকাপ জিতে আসা দিপু লাল বলে কেমন করেন, সেটাই দেখার অপেক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *