ভ্যানে কিটব্যাগ, পোডিয়ামের জায়গায় কার্টন : জোড়াতালির বিপিএল!

বিসিবির কর্তাব্যক্তিরা বেশ গর্ব নিয়েই বলে থাকেন, বিশ্বের সেরা ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ বিপিএল! তবে খোদ সংশ্লিষ্টরাই এমন ‘অবাস্তব’ কথা মনেপ্রাণে কতটুকু বিশ্বাস করেন এটা নিয়ে সন্দেহ আছে। বাস্তবতা বলছে, গত এক যুগে ৯ আসর পার করে দশম সংস্করণ মঞ্চায়নের অপেক্ষায় থাকা বিপিএল এখনো ক্রিকেট লিগের চেয়ে ‘প্রবলেম লিগ’ হিসেবেই থেকে গেছে।

প্রতিবারই টুর্নামেন্ট শুরুর আগে নানা ঘটনা কিংবা বিতর্কের জন্ম দেয় বিপিএল। বিশ্বের এটাই হয়তো একমাত্র টুর্নামেন্ট যেখানে আসর শুরুর একদিন আগে অধিনায়কের নাম জানা যায়। বিপিএল ইতিহাসে এখন পর্যন্ত খেলা ৮টি ফ্র্যাঞ্চাইজি নাম বদল করেছে ২৮ বার। বিপিএলের আসরগুলোতে ঘুরেফিরে যে বিতর্কগুলো দেখা যায়— আম্পায়ারিং, মিরপুরের উইকেট, ধারাভাষ্য ও সম্প্রচারের মান। যা নিয়ে টুর্নামেন্ট চলাকালে আলোচনা হলেও, পরে আর সমাধানের মুখ দেখা যায় না।

প্রতিবারই বদলে যাওয়ার প্রত্যয় শোনা যায়। কিন্তু আদতে তেমন পেশাদারিত্বের ছাপ দেখা যায় না কোথাও। এই যেমন বিপিএলের দশম আসর শুরুর আগমুহূর্তে দুটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, একটি ফ্র্যাঞ্চাইজি ভ্যানে করে খেলোয়াড়দের কিটব্যাগ মাঠে আনছে।

এ ছাড়া টুর্নামেন্টের একদিন আগে গণমাধ্যমে কথা বলেছেন ফরচুন বরিশালের আইকন ক্রিকেটার ও অধিনায়ক তামিম ইকবাল। কিন্তু তার জন্য সামান্য একটা পোডিয়ামের বন্দোবস্ত করা যায়নি। কিছু বক্স জোড়াতালি দিয়ে কাজ সারা হয়েছে। এই ছবিটা নিয়ে ইতোমধ্যে অনেকেই ক্ষোভ ঝারছেন। সিনিয়র এক ক্রীড়া সাংবাদিক যেমনটা বলছিলেন, ‘এই ছবিটা কিন্তু বাইরে যাবে। তার চেয়ারটা দেখেন। এই এক ছবি দেখে বলে দিতে পারবেন বিপিএল টা কেমন?’

আরো পড়ুন  একাত্তর টিভিকে মুশফিকের আইনি নোটিশ

সব ছাপিয়ে মাঠের ক্রিকেটটা শুরু হচ্ছে আজ থেকে। কিছুটা আশার খবর হচ্ছে, আগেরবারের ডিসিশিন রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস) না থাকার বিতর্ক এবার আর নেই। প্রথম দিন থেকেই থাকছে এই প্রযুক্তি। বিপিএলের ব্রডাকাস্টিংয়েও এবার ভিন্ন মাত্রা দেখা যাবে। ড্রোন ক্যামেরার সঙ্গে থাকছে, রোবট ক্যামেরা, স্পাইডার ক্যামেরার মতো আধুনিক সব প্রযুক্তি। সবমিলিয়ে ৩৬টি ক্যামেরা দিয়ে মাঠের খেলা সম্প্রচার করা হবে। থাকছে ভিন্ন ধরনের স্কোরকার্ডও। এবার বিপিএলের জন্য তৈরি করা হয়েছে ওয়েবসাইটও। সেখান থেকে টুর্নামেন্ট সম্পর্কিত তথ্য পেতে পারবেন দর্শকরা।

এ ছাড়া উদ্বোধনী দিনে মাঠে নামছে চারটি দল। উদ্বোধনী ম্যাচে দুপুর আড়াইটায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স এবং দুর্দান্ত ঢাকা মুখোমুখি হবে। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মাঠে নামবে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স এবং সিলেট স্ট্রাইকার্স। দুটি ম্যাচই অনুষ্ঠিত হবে মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে। যদিও এখনও বেশিরভাগ দলেরই বিদেশি ক্রিকেটাররা বাংলাদেশে আসেননি। এরপর এলেও, একই সময়ে বেশ কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট চলমান থাকায় তারা থাকবেন আসা-যাওয়ার মাঝে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *