মিরপুরের উইকেটকে ‘সবচেয়ে বাজে’ বললেন সাউদি

মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে টেস্ট ম্যাচ মানে স্পিনারদের একচ্ছত্র আধিপত্য আর ব্যাটসম্যানদের খাবি খাওয়ার দশা! নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আজ (শনিবার) শেষ হওয়া টেস্ট সিরিজে আবারও সেই একই চিত্র দেখা গেল। দ্বিতীয় ম্যাচটি চতুর্থ দিনে গড়ালেও, সবমিলিয়ে খেলা হয়েছে মাত্র ১৭৮.১ ওভার। যা বলের হিসেবে তৃতীয় টেস্ট ইতিহাসের তৃতীয় সর্বনিম্ন। পরে ম্যাচজয়ী কিউই অধিনায়ক টিম সাউদি মিরপুরের পিচ নিয়ে কড়া সমালোচনা করেছেন। তার মতে– সম্ভবত এটা ক্যারিয়ারে খেলা সবচেয়ে বাজে উইকেট।

এর আগে বৃষ্টি ও আলোকস্বল্পতা সবমিলিয়ে চারটি সেশনের খেলা মাঠে গড়ায়নি। বলের (১০৬৯) হিসেবে সেটি আরও ভালো মতো টের পাওয়া যায়, যা দুই দিনেরও কম। উপমহাদেশের উইকেটে বল টার্ন করা অস্বাভাবিক কিছু নয়। কিন্তু মিরপুরে টার্নের চেয়েও বিপদজনক ছিল অস্বাভাবিক বাউন্স। কখনও বল গড়িয়ে যাচ্ছে, কখনওবা আচমকা লাফিয়ে বুক সমান উচ্চতায় উঠে পড়ছে। ব্যাটসম্যানরা তো দূর, বোলারদেরও বল যাওয়ার মুভমেন্ট বোঝা মুশকিল হয়ে পড়েছিল।

তাই তো ম্যাচ শেষে উইকেট নিয়ে অকপটে নিজের অনুভূতি জানিয়েছেন সাউদি, ‘আমার মতে এটি অসম্পূর্ণ একটি টেস্ট। উইকেটটা ছিল খুবই কঠিন। যেখানে রান তোলা কঠিন, ফলে ছোট কোনো জুটিও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়িযেছিল। এই উইকেট বর্ণনা করার অনেক পথ আছে। আমার মনে হয় ১৭০ ওভারের মধ্যে (১৭৮.১) ওভারের মধ্যে ম্যাচ শেষ হয়ে যাওয়া বোঝায় উইকেট কেমন। এটা ভালো ছিল না। এমনকি এখানে ব্যাটে-বলের লড়াইও হয়নি।’

মিরপুরের উইকেটকে একদম একপেশে এবং বাজে বলতেও দ্বিধা নেই এই কিউই তারকার, ‘সম্ভবত আমার গোটা ক্যারিয়ারে খেলা সবচেয়ে বাজে উইকেট এটা। ব্যাটে-বলে ভারসাম্যের বদলে এটা পুরোপুরি বোলারদের পক্ষে ছিলো। ১৭০ ওভারের মধ্যে খেলা শেষ হয়ে যাওয়া উইকেটের প্রতিবিম্ব। আমাদের ছেলেরা হোঁচট খেয়ে খাদে পড়ে আবার ঘুরে দাঁড়িয়ে জিতেছে, এটা সবচেয়ে আনন্দের।’

আরো পড়ুন  ফাইনালে ওঠার লড়াই : সাকিবদের ব্যাটিংয়ে পাঠালেন তামিম

সংবাদ সম্মেলনে পিচ নিয়ে কথা বলেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্তও। তবে তার কণ্ঠে ছিল ভিন্ন সুর, ‘যখন আমরা হোমে খেলব, আমরা এনসিএলে এমন উইকেটে খেলে থাকি। আমাদের এ ধরনের উইকেট থেকে অ্যাডভান্টেজ নেওয়া উচিৎ ছিল। আবার অ্যাওয়ের জন্য দুই-তিনটা উইকেট আমরা অন্যভাবে বানালাম। কিন্তু আমার মনে হয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট প্র্যাকটিসের জায়গা না। এখানে ইমপ্রুভ করারও কিছু নাই যে ভালো উইকেটে খেলে আমরা ভালো ম্যাচ খেললাম। এখানে আমরা জেতার জন্য আসি।’

এর আগে অবশ্য প্রথম টেস্টের ভেন্যু সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম নিয়ে দু’পক্ষই সন্তুষ্ট ছিল। ম্যাচও হয়েছিল দারুণ রোমাঞ্চকর। পঞ্চম দিনে গড়ানো ম্যাচটিতে শেষ পর্যন্ত জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। মিরপুরে স্বাগতিকদের হারে সমতায় ফেরে নিউজিল্যান্ড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *