সিলেটে টেস্ট জয়ের সুবাস পাচ্ছে বাংলাদেশ

ঘরের মাঠে ওয়ানডেতে হোয়াইটওয়াশের নজির থাকলেও টেস্ট ফরম্যাটে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জয়টা এতদিন অধরাই ছিল বাংলাদেশের। এবার সেই খরা কাটানোর দ্বারপ্রান্তে নাজমুল হোসেন শান্তর দল। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশীপের নতুন চক্রে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টের চতুর্থ দিনের খেলা শেষে চায়ের দেশ সিলেটে জয়ের সুবাস পাচ্ছে লাল-সবুজের বাহিনী।

ঘরের মাঠে কিউইদের প্রথমবার টেস্টে হারাতে বাংলাদেশের অপেক্ষা আর মাত্র ৩ উইকেটের। ৩৩২ রানের পাহাড়সম টার্গেট তাড়ায় স্কোরবোর্ডে ১০২ রান তুলতেই ৭ উইকেট হারিয়ে ফেলেছে সফরকারীরা। সিলেট টেস্টের ভাগ্য বদলাতে এখনও ২২১ রান করতে হবে নিউজিল্যান্ডকে। পরিস্থিতি বিবেচনায় যা অসম্ভবই বলা চলে।

সিলেট টেস্টের প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৩১০ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে কেইন উইলিয়ামসনের লড়াকু সেঞ্চুরিতে ভর করে তাদের সংগ্রহ ছিল ৩১৭। ৭ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে দারুণ জবাব দেয় বাংলাদেশ। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিং শেষে আজ কিউইদের সামনে ৩৩২ রানের পাহাড়সম টার্গেট ছুড়ে দেয় বাংলাদেশ।দলের পক্ষে অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত ১০৪, মুশফিকুর রহিম ৬৭ ও মেহেদি হাসান মিরাজ অপরাজিত ৫০ রান করেন। নিউজিল্যান্ডের স্পিনার এজাজ প্যাটেল সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন।

এর আগে এতবড় রান তাড়া করে জয়ের নজির নেই নিউজিল্যান্ডের। বড় লক্ষ্য তাড়ায় এদিন শুরুতেই হোঁচট খায় কিউইরা। ইনিংসের প্রথম ওভারেই বাংলাদেশকে দারুণ শুরু এনে দেন শরিফুল ইসলাম। এই বাঁহাতি পেসারের খাটো লেন্থের বলে খোঁচা দিয়ে উইকেটের পেছনে ধরা পড়েন টম লাথাম। ডাক খেয়ে এই ওপেনার সাজঘরে ফেরায় রানের খাতা খোলার আগেই উইকেট হারায় সফরকারীরা।

আরো পড়ুন  শ্রীলঙ্কা সিরিজে নেই সাকিব, ফিরলেন মাহমুদউল্লাহ

লাথাম ফেরার পর কনওয়েকে সঙ্গে নিয়ে ইনিংস মেরামতের চেষ্টায় ছিলেন কেইন উইলিয়ামসন। প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান এ যাত্রায় ব্যর্থ হলেন। অভিজ্ঞ এই ব্যাটার তাইজুলের ঘূর্ণিতে দিশেহারা হয়েছেন! লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ার আগে ২৪ বলে করেছেন ১১ রান।

থিতু হওয়ার আগেই হেনরি নিকোলসকে বিদায় করেন মেহেদি হাসান মিরাজ। ১৩তম ওভারের চতুর্থ বলে মিরাজকে সুইপ করতে গিয়ে ঠিকমতো টাইমিং করতে পারেননি নিকোলস। টপ এজ হয়ে বল ওঠে সোজা আকাশে। শর্ট ফাইন লেগ থেকে কয়েক পা সরে বল তালুবন্দি করেন নাঈম। ২ রান করে নিকোলস ফেরায় ৩০ রান তুলতেই টপ অর্ডারের তিন ব্যাটারকে হারিয়ে বিপাকে পড়ে নিউজিল্যান্ড।

এরপর মিচেলকে সঙ্গে নিয়ে জুটি গড়ার চেষ্টায় ছিলেন কনওয়ে। চা বিরতি থেকে ফিরেই এই জুটি ভেঙেছেন তাইজুল ইসলাম। এই বাঁহাতি স্পিনারের টার্ন করে বেরিয়ে যাওয়া বল ডিফেন্স করতে গিয়ে সিলি পয়েন্টে ক্যাচ দিয়েছেন কনওয়ে। ২২ রান করে এই ওপেনার ফেরায় দলীয় ফিফটির আগেই সাজঘরে ফেরেন সফরকারীদের চার ব্যাটার।

প্রথম ইনিংসে চার উইকেট শিকার করা তাইজুল দ্বিতীয় ইনিংসেও হুল ফোটাচ্ছেন সিলেটে। কনওয়ের পর ড্রেসিংরুমে ফেরত পাঠালেন কিপার-ব্যাটার টম ব্লান্ডেলকে। বাউন্স করা ডেলিভারিটি ঠিক বুঝে উঠতে পারেননি ব্লান্ডেল। ব্যাটের বাইরের কানা ছুঁয়ে বল জমা পড়ে উইকেটরক্ষক সোহানের গ্লাভসে।

তিনশ ছাড়ানো লক্ষ্য তাড়ায় চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে নিউজিল্যান্ড। স্কোরবোর্ডে একশ রান যোগ করতে তারা হারিয়ে ফেলে ৬টি উইকেট। এরপর সপ্তম উইকেট জুটিতে কিছুটা প্রতিরোধের চেষ্টা করেন ড্যারেল মিচেল ও কাইল জেমিসন। সেই তাইজুলের স্পিনবিষেই নিল হলেন জেমিসন। ২৮ বলে ৭ রান করেন তিনি।

আরো পড়ুন  তিন উইকেট হারিয়ে চাপের মুখে নিউজিল্যান্ড

৮৬ বলে ৪৪ রান করে অপরাজিত আছেন কিউই মিডল অর্ডার ব্যাটার ড্যাারিল মিচেল। সফরকারীদের ব্যাটিংয়ে স্বীকৃত ব্যাটসম্যান বলতে এখন কেবল তিনিই আছেন। তার সঙ্গে ২৪ বলে ৭ রান করে অপরাজিত আছেন ইশ সোধি। বাংলাদেশের হয়ে এই ইনিংসেও সবচেয়ে সফল বোলার তাইজুল। ২০ ওভার বল করে ৭ মেইডেনে ৪০ রান খরচায় ৪ উইকেট তুলে নিয়েছেন। এ ছাড়া একটি করে উইকেট নিয়েছেন শরিফুল, মিরাজ ও নাইম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *